Admission

ভর্তি সংক্রান্ত তথ্য

মাদকাসক্তি মস্তিষ্কের একটি রোগ বা মনোদৈহিক অসুস্থতা। দীর্ঘ দিন মাদক গ্রহনের ফলে ব্রেইনের স্বাভাবিক কার্য্কলাপ পরিবর্তন হয়ে যায়। দীর্ঘ মেয়াদি চিকিৎসা ও পুনঃআসক্তি প্রতিরোধ পরিকল্পনার মাধ্যমে এক জন মাদকাসক্ত ব্যক্তি পেতে পারে স্বাভাবিক জীবন যা অর্জিত হয় একমাত্র পুনবার্সন প্রক্রিয়ায় ।

★চিকিৎসার মেয়াদ কতদিন?

কেন্দ্রে চিকিৎসার মেয়াদকাল কমপক্ষে ৬ মাস৷ বিভিন্ন গবেষনার ফলাফল ও অভিজ্ঞতায় দেখা যায় স্বল্পমেয়াদী চিকিৎসায় রিল্যাপ্স বা পুনঃ আসক্তির সম্ভাবনা অনেক বেশি ঘটে থাকে৷বিধায় বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক প্রেক্ষাপটে কথা বিবেচনা করে ওমেগা পয়েন্ট মেয়াদ নির্ধারন করেছে কমপক্ষে ৪/৬ মাস৷

★ভর্তির নিয়মাবলী কি?

যে কোন ধর্ম, বর্ণ বা গোত্রের সকল ধরনের মাদক নির্ভরশীল পুরুষ এই কেন্দ্রে ভর্তি হতে পারে৷ তবে ভর্তি হতে ইচ্ছুক ব্যক্তি ও তার পরিবারের সদস্যদের সেন্টারের নিয়ম কানুন মেনে চলা ও কমপক্ষে ৪/ ৬ মাসের কোর্স শেষ করার সম্মতি। 

★ কিভাবে চিকিৎসা করা হয় ?


*ভর্তি হবার পরে প্রথম ১৪ দিন মাদক প্রত্যাহার জনিত উপসর্গ উপশমের জন্য চিকিৎসা দেয়া হয় যা নির্বিষকরন বা ডিটক্সিকেশন বলা হয়৷* রুগীর মাদক ব্যবহার সম্পর্কিত ইতিহাস জেনে, প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরিক্ষার পর ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ি চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়৷এক্ষেত্রে সেন্টারের মেডিকেলগন অফিসার তার ডিটক্সিকেশন প্রকৃয়াটি মনিটরিং করেন।শারিরীক উন্নতির পরে মানসিক চিকিৎসক রুগীর মানসিক সক্ষমতা নির্ণয় করেন।যদি কোন মানসিক সমস্যা দেখা যায়  তার চিকিৎসা সেবা প্রদান করেন।এ সময় রুগীকে শারিরীক ও মানসিক ভাবে বিশ্রামের উপযোগী পরিবেশে রাখা হয়৷ এছাড়া জরুরী স্বাস্থ্য সেবার জন্য হাসপাতালে বা ক্লিনিকে পাঠানো হয়৷দরিদ্র ও অসচ্ছল রুগীদের জন্য সহায়তা দেয়া হয়


★ এখানে নিরাপত্তা ব্যবস্থা কেমন ?

মাদক নির্ভশীলদের চিকিৎসার বিষয়টিকে বিবেচনায় রেখে নিরাপত্তা মুলক ব্যবস্থা রয়েছে৷ অগি্ননির্বাপক যন্ত্র ও যে কোন জরুরী অবস্থার জন্য সার্বক্ষণিক পর্যাপ্ত লোকবল সেন্টারে রয়েছে ও সিসি ক্যামেরায় পর্যবেক্ষণ করা হয়।

★চিকিৎসার মেয়াদ শেষ হবার পূর্বে বাড়িতে যাবার কোন সুযোগ রয়েছে কি ?

চিকিৎসার মেয়াদ পূর্ণ হবার পূর্বে রিলিজের কোন সুযোগ নাই৷বিশেষ মানবিক বিষয় যেমন নিকট আত্মীয়র মৃত্যু বা চিকিৎসার জন্য হাসাপাতাল প্রেরন ইত্যাদি বিষয়ে ছাড় দেয়া হয়৷
কিন্ত নির্দিষ্ট সময়ের পুর্বে রোগীকে অভিবাবক যদি নিজ হেফাজতে নিতে চায়, 
তাহলে সম্পুর্ণ কোর্স ফী পরিশোধ করতে হবে। 

★মানসিক চিকিৎসার জন্য কি সেবা রয়েছে ? 

 সব মাদক নির্ভরশীল ব্যক্তিই মানসিক রুগী নয়৷ যাদের মাদক ব্যবহার করার ফলে মানসিক সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে তারা এখানে ভর্তি হতে পারবে৷ এখানে একজন খন্ডকালীন মনো-চিকিৎসক রয়েছেন৷ তিনি প্রয়োজন অনুসারে মানসিক বা মনোচিকিৎসা সেবা দিয়ে থাকেন৷

★পরিবারের সদস্যদের জন্য কোন কর্মসূচী রয়েছে ?

প্রায়ই লক্ষ্য করা যায় যে, অনেক মাদক নির্ভরশীল ব্যক্তির পরিবারে ভাঙন, পারিবারিক বিশৃঙ্খলা ও সম্পর্কের জটিলতা রয়েছে৷চিকিৎসা ও পুনর্বাসনের জন্য পারিবারিক সম্পৃতি ও পরিবারের ভূমিকা রয়েছে৷চিকিৎসা পরবর্তী পরিচর্যা ও ফলোআপের জন্য পরিবারের ভূমিকা অগ্রগন্য৷ পরিবারের সদস্যদের মাদক নির্ভরশীলতার চিকিৎসা সম্পর্কিত ধারনা, রুগীদের প্রতি ইতিবাচক মনোভাব পোষন ও সহায়তার জন্য পারিবারিক সভার মাধ্যমে আলোচনা করা হয়৷
রোগী ভর্তির ১ মাস পর থেকে পরিবারের সদস্যরা প্রতি শুক্রবার সেন্টারে রোগীদের সাথে দেখা করতে পারবেন৷রুগীর সার্বিক অবস্থা সম্পর্কে খোজ-খবর নেয়া যাবে৷ ব্যক্তিগত, দম্পতি ও পারিবারিক কাউন্সেলিং করা যায় যা রুগীর সাথে পরিবারের সুন্দর ও স্বাভাবিক অবস্থা তৈরিতে সাহায্য করে৷ 

★ বিনোদনের জন্য কি ব্যবস্থা রয়েছে ?

মাদক নির্ভরশীলতা একটি মনোদৈহিক রোগ৷ শরীর ও মনের সুস্থতা ও বিকাশলাভের জন্য পর্যাপ্ত খেলাধুলা ও বিনোদনের ব্যবস্থা রয়েছে৷ দাবা ও ক্যারাম খেলতে পারে৷ সংবাদ পত্র, বইপড়া, টিভি দেখার ব্যবস্থা রয়েছে এবং সপ্তাহে একদিন ভাল মানের চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হয়৷ বিভিন্ন সামাজিক , ধর্মীয় অনুষ্ঠান ও আন্তজার্তিক দিবস উদযাপন ছাড়াও বার্ষিক ক্রীড়া ও পিকনিকের আয়োজন করা হয়৷ 

★ পরবর্তী পরিচর্যা ও পুনঃপতন এর বিরুদ্ধে কি ব্যবস্থা রয়েছে ?

পূর্ণমেয়াদ চিকিৎসার পর ফলোআপের ব্যবস্থা রয়েছে৷
চিকিৎসার পর এখানে রুগীরা  সেল্প-হেল্প গ্রুপে যোগ দিতে পারে৷

★কতবার খাবার পরিবেশন করা হয় ?

সাধারনভাবে সকালের নাস্তা, দুপুরেরর খাবার ও রাতের খাবার দেয়া হয়৷ এর সাথে সকালে ও বিকেলে চা-নাস্তা দেয়া হয়৷ রুগীদের পুষ্টিগত দিক লক্ষ্য রেখে উন্নতমানের আমাদের নিজস্ব মেডিকেল অফিসার অনুমোদিত খাবার দেয়া হয়৷

 ★পরিবারের সদস্যরা কি রুগীর সাথে দেখা করতে পারে ?

ভর্তিও প্রথম একমাস পর থেকে পরিবারের সদস্যরা প্রতি শুক্রবার রুগীর সাথে দেখা করতে পারবেন৷ 

★চিকিৎসাকালীন সময়ে রুগীকে কি বাইরে নেয়া যাবে ?

রুগীকে বাইরে নেয়ার কোন সুযোগ নেই৷ তবে জরুরী কোন বিষয়ে লিখিত অনুমতির মাধ্যমে শুধুমাত্র অভিভাবক নিতে পারবেন এবং নিদিষ্ট সময় পর পুনরায় সেন্টারে নিয়ে য়েতে হবে৷ রোগী সেন্টারের বাইরে নেয়ার পূর্বে সকল অর্থ পরিশোধ করতে হবে

★পুনর্বাসনের জন্য কোন চাকুরির সুযোগ রয়েছে কি ?

চিকিৎসা পরবর্তী সময়ে রুগীর শারিরীক ও মানসিক, শিক্ষাগত যোগ্যতা, চাকুরী করার মানসিকতার কথা বিবিচনা করে সুযোগ প্রদান করা হয়,
সেন্টারের আত্নকর্মসংস্থান প্রকল্পে ভকেশনাল ট্রেনিং এর ব্যাবস্থা আছে। 

★বাইরে থেকে রুগীকে খাবার দেয়া যাবে কি না ?

বাইরে থেকে কোন খাবার দেয়া যাবে না৷ তবে কোন উৎসব বা বিশেষ আয়োজনে কর্তৃপক্ষের সাথে আলাপ করে সেন্টারের অবস্থানরত সবার জন্য খাবার দেয়া যাবে৷ 


★কেউ অসুস্থ হলে তার জন্য কি আলাদা খাবার দেয়া হয় ?

কেউ অসুস্থ থাকলে ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী বিশেষ খাবার দেয়া হয়৷ 


★ রুগীর ফলোআপের সময় কতদিন ?

সাধারনত সেন্টারে ৩ মাস ফলোআপ করা হয়৷ কারো কারো জন্য এটা বেশীও হতে পারে৷ 


★কি ধরনের চিকিৎসা দেয়া হয় ?

মাদক নির্ভরশীলতার চিকিৎসা একটি জটিল, দীর্ঘ মেয়াদী ও সমন্বিত প্রচেষ্টা এবং চিকিৎসা বিজ্ঞানে বলা হয় মাদক নির্ভরশীলতা অনিরাময়যোগ্য রোগ৷কিন্তু চিকিৎসার পরবর্তী পরামর্শ অনুযায়ী নিয়ন্ত্রিত জীবন-যাপন করলে মাদকমুক্ত থাকা সম্ভব৷ 
রুগীকে প্রথম১৫ দিন ডিটক্সিফিকেশন করার পর পুনর্বাসন প্রক্রিয়ায় নেয়া হয়৷এখানে 
মাল্টি এপ্রোচিং
থেরাপিউটিক কমিউনিটি, 
নারকোটিকস্ এনোনিমাসের ১২ ধাপ 
ও মনোসামাজিক শিক্ষা
একক কাউন্সেলিং
একক থেরাপী, 
গ্রুপ কাউন্সিলিং ও 
গ্রুপ থেরাপির মাধ্যমে 
একজন আসক্ত ব্যাক্তির মনোদৈহিক অবস্থাকে 
পুনর্বাসিত করা হয়।ইন্টারন্যাশনাল সেন্টার ক্রেডেনশিয়াল এডুকেশন ( আইসিসিই) এর ইউনিভার্সেল ট্রীটমেন্ট কারিকুলাম কলোম্বো প্ল্যান এর ট্রেইন্ড এডিকশন প্রফেশনাল দ্বারা পুরো ট্রীটমেন্ট প্রসেস সার্বক্ষণিক  মনিটরিং করা হয়। 

★এইচ আইভি পরীক্ষা করা হয় কি না ?

রোগীর সম্মতি সাপেক্ষে এইচ আইভি পরীক্ষা করানো  হয়৷ এক্ষেত্রে গোপনীয়তা রক্ষা করা হয়৷ 


★ইচ্ছার বিরুদ্ধে কাউকে ভর্তি করা হয় ?

অনেক রুগীর ভর্তির ইচ্ছা প্রাথমিকভাবে থাকে না৷রুগীর অভিভাবক যদি রাজী থাকেন এবং ৬ মাস সেন্টারে রাখার জন্য মানসিক প্রস্তুত থাকে তাহলে ভর্তি করা হয়৷ এক্ষেত্রে রুগীকে সেন্টার পর্যন্ত অভিভাবকের দায়িত্বে নিয়ে আসতে হবে৷অবাধ্য রোগীকে সেন্টার পর্যন্ত নিয়ে আসার জন্য আমাদের নিজস্ব ব্যবস্থা আছে৷

★★ এছারা যেসব রোগী সেলফ মোটিভেটেড 
তাদের স্বল্পমেয়াদী চিকিৎসা সেবা নেবার সুযোগ রয়েছে।

Admission

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to top